কলকাতা লিগের জন্য একেবারে শক্তিশালী দল গড়তে মরিয়া ইস্টবেঙ্গল!

নিজস্ব সংবাদদাতা: শোনা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই এই ছয় ফুটবলার কলকাতায় দলেও এসেছেন। এবং তাদের মেডিক্যাল টেস্ট হবে। মেডিক্যালের পর যদি তারা ফিট প্রমাণিত হন, তা হলেই কলকাতা লিগের জন্য ইস্টবেঙ্গল টিমে যুক্ত করা হবে এই ছয় ফুটবলারকে।

 

এই ছয় ফুটবলারের মধ্যে অন্যতম হলেন সন্তোষ ট্রফি জয়ী কেরালা দলের নায়ক জেসিন টিকে। যা খবর, কেরালা ইউনাইটেড থেকে নো অবজেকশন সার্টিফিকেট দেওয়া হয়েছে তাঁকে। এ ছাড়া এমএ কলেজের ডিফেন্ডার আদিল আমাল, বাস্কোর ফরোয়ার্ড বিষ্ণু টিএম, গোকুলাম কেরালার গোলকিপার মুহাম্মদ নিশাদ, কেরালা ইউনাইটেডের ডিফেন্ডার আথুল উন্নিকৃষ্ণণ এবং ট্রাভাঙ্কোর রয়্যালসের ফরোয়ার্ড লিজো কুরুসাপ্পানকে নিয়েছে লাল-হলুদ ব্রিগেড।

 

কলকাতা লিগের জন্য একেবারে শক্তিশালী দল গড়তে মরিয়া ইস্টবেঙ্গল। কোনও ভাবেই এই টুর্নামেন্টকে হাল্কা ভাবে নিতে রাজি নন স্টিফেন কনস্ট্যানটাইন। এটিকে মোহনবাগান কলকাতা লিগে খেলা নিয়ে টালবাহানা করলেও, লাল-হলুদ কিন্তু ঢেলে দল সাজাতে ব্যস্ত

 

এই ছয় ফুটবলারের মধ্যে অন্যতম হলেন সন্তোষ ট্রফি জয়ী কেরালা দলের নায়ক জেসিন টিকে। যা খবর, কেরালা ইউনাইটেড থেকে নো অবজেকশন সার্টিফিকেট দেওয়া হয়েছে তাঁকে। এ ছাড়া এমএ কলেজের ডিফেন্ডার আদিল আমাল, বাস্কোর ফরোয়ার্ড বিষ্ণু টিএম, গোকুলাম কেরালার গোলকিপার মুহাম্মদ নিশাদ, কেরালা ইউনাইটেডের ডিফেন্ডার আথুল উন্নিকৃষ্ণণ এবং ট্রাভাঙ্কোর রয়্যালসের ফরোয়ার্ড লিজো কুরুসাপ্পানকে নিয়েছে লাল-হলুদ ব্রিগেড।

 

শোনা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই এই ছয় ফুটবলার কলকাতায় দলেও এসেছেন। এবং তাদের মেডিক্যাল টেস্ট হবে। মেডিক্যালের পর যদি তারা ফিট প্রমাণিত হন, তা হলেই কলকাতা লিগের জন্য ইস্টবেঙ্গলের রিজার্ভ দলে যুক্ত হবেন এই ছয় ফুটবলার।

 

এ দিকে ইস্টবেঙ্গল মাঠের পরিবর্তে রাজারহাটের সেন্টার অফ এক্সেলেন্সে অনুশীলন শুরু করেছে স্টিফেন কনস্ট্য়ানটাইনেরদল। সোমবার আইএফএর তরফে সুপার সিক্সের খসড়া সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। এবং সেখানে ইমামি ইস্টবেঙ্গলের ম্যাচ পড়েছে ২২ এবং ২৫ সেপ্টেম্বর। আর অক্টোবরের ১৪, ২৪ এবং ২৭ তারিখে। বলা বাহুল্য, ২৫ সেপ্টেম্বর মহামেডান এবং ২৭ অক্টোবর এটিকে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ম্যাচ পড়েছে লাল-হলুদের।

 

তিন প্রধানের মাঠ পরীক্ষা করবে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পূর্ত দপ্তর। মাঠ ফিট থাকলে তবেই সূচী চূড়ান্ত করা হবে। মোহনবাগান এখনও খেলার ব্যাপারে কিছুই জানায়নি। তারা জানিয়েছেন, আইএসএল-এর আয়োজক এফএসডিএল-এর সঙ্গে কথা বলেই কলকাতা লিগে খেলার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন সবুজ-মেরুন কর্তারা।