জমির সীমানা প্রাচীর ভাঙাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক:- বর্ধমান পুলিশ লাইন সংলগ্ন একটি জমির সীমানা প্রাচীর ভাঙাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। নিজেকে জমির মালিক হিসেবে পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি দাবি করেন, বৈধ সব কাগজ থাকা সত্ত্বেও তাঁকে আগাম কিছু না জানিয়েই ওই সীমানা প্রাচীর ভেঙে দেওয়া হয়েছে। তাঁর অভিযোগ, পুলিশ লাইনে কর্মরত এক আধিকারিকের নেতৃত্বে এই সীমানা প্রাচীর উচ্ছেদের কাজ চালানো হয়েছে।  তিনি এ ব্যাপারে  জেলা পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন । যদিও পূর্ব বর্ধমানের জেলা পুলিশ সুপার কামনাশিস সেন জানান, এই ধরনের কোনও অভিযোগ মেলেনি।

বর্ধমানের কানাইনাটশাল এলাকার বাসিন্দা প্রদীপ আইচ জানান,  বর্ধমান জেলা পুলিশ লাইন ও জি টি রোডের মাঝে আমার একটি জমি রয়েছে। জমির মালিকানা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় সব কাগজও রয়েছে। ভবিষ্যতে যাতে পার্শ্ববর্তী এলাকার জমির মালিক সঙ্গে কোনও রকম বিবাদ না হয় তা নিশ্চিত করতে দেড় মাস আগে আমি আমার জায়গায় সীমানা প্রাচীর দিয়েছিলাম। তখন কেউ কোনও আপত্তি করেনি।কিন্তু সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টা নাগাদ দেখি জেসিবি মেশিন দিয়ে ওই সীমানা প্রাচীর ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া হয়। তাঁর অভিযোগ, আমাকে আগাম কোনও কিছু না জানিয়েই বেআইনিভাবে গায়ের জোরে ওই প্রাচীর ভেঙে দেওয়া হলো। পুলিশ লাইনের এক আধিকারিকের নেতৃত্বে এই কাজ হয়েছে বলে তাঁর অভিযোগ। তিনি বলেন, প্রাচীর ভাঙার সিসিটিভি ফুটেজ রয়েছে।