ইন্ডিয়া বুক অব রেকর্ডস-এ নাম উঠল কালিয়াচকের আলমগীরের

মোঃ নাওয়াজ শরীফ, নতুন গতি, মালদা: মঙ্গলবার ‘ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ড’ – এর পক্ষ থেকে সম্মান জানানাে হল কালিয়াচকের যুবক আলমগীর খানকে। জানা গেছে, বছর ২৪ – এর এই যুবকের বাড়ি মালদা জেলার কালিয়াচক থানার থানা পাড়া এলাকায়। বর্তমানে স্বামী বিবেকানন্দ ইন্সটিটিউট অফ সাইন্স এন্ড টেকনোলজি কলেজে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং এ চতুর্থ বর্ষে পাঠরোত। ছেলে এই স্বীকৃতি পাওয়ায়, এই ভাবে কালিয়াচকের নাম উজ্জ্বল করায় ভীষণ উচ্ছ্বসিত তার বাবা-মা। আলমগীর এই রকম সম্মান পাওয়ার খবরে গর্বিত এলাকাবাসী।

বাবা শাহানসা খান পেশায় ব্যবসায়ী ও মা দিলবাহার বিবি একজন গৃহবধূ। এদিন তার হাতে মেডেল, বই, ব্যাজ, পেন, আইকার্ড সহ শংসাপত্র তুলে দেওয়া হয় । সূত্রের খবর, গত বছর মার্চ মাসে উত্তরবঙ্গের পাঁচ জেলাতে রক্তদান, অঙ্গদান ও বিয়ের আগে থ্যালাসেমিয়ার টেস্টের বিষয়ে প্রচার চালানাে হয়। সেই মােটর সাইকেল র্যালিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আলমগীর খান। এছাড়াও, উত্তরবঙ্গের মােট ১১ টি ব্লাড ব্যাঙ্কের সঙ্গে কথাও বলেন র্যালিতে অংশ গ্রহণকারীরা। সূত্রের খবর, আলমগীর খান মালদা জেলার রক্তদান আন্দোলনের অন্যতম কাণ্ডারি। তিনি মালদা ডিস্ট্রিক্ট ভলেন্টারি ব্লাড ডােনার্স ফোরামের জেলা সম্পাদক।

আলমগীর জানান, ছােট থেকেই রক্তের অভাবে অনেককে চোখের সামনে মরতে দেখেছি। প্রয়ােজনে রক্ত না পাওয়াটা কত বড় সমস্যা তা একমাত্র ভুক্তভােগীরাই বােঝে। রক্তের অভাবে যাতে কেউও না মারা যায় তার জন্যই প্রধানত এই উদ্যোগ বলে জানান তিনি। জেলার যুব সমাজকেও এ কাজে আরও বেশি করে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। তার বাবা ও তার মা চান, এখন নিজের মতো করে বড় হোক আলমগীর। বড় মানুষ হবার সাথে সাথে আরও উজ্জ্বল করুক কালিয়াচকের নাম।