ব্যাঙ্কের গচ্ছিত টাকাই ভরসা আমজনতার

মহিউদ্দীন আহমেদ, বোলপুর: কোরনা আবহের জেড়ে কাজকর্ম প্রায় বন্ধ। কর্মহীন হয়ে পড়েছেন হাজার হাজার মানুষ। সরকারী চাকুরীজীবি, বড় মুদীখানা দোকান, ঔষুধের দোকান মালিকরা স্বাভাবিক অবস্হায় থাকলেও আর্থিক সমস্যায় জেরবার সাধারন আমজনতা। যারা অল্প রোজগেরে, দৈনিক রোজগারের উপর সংসার চালান তার পড়েছেন বেশ সমস্যায়। এখন ছেলে মেয়ে নিয়ে দুবেলা দুমুঠো পেট ভরাতে ভরসা ব্যাঙ্কে গচ্ছিত টাকা টুকুই। তাই সব ব্যাঙ্কের সামনেই সকাল থেকে পড়ছে দীর্ঘ লাইন। বোলপুরের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এক আধিকারিক বলেন, প্রতিদিন দশটায় ব্যাঙ্ক খুললেও সকাল সাড়ে আটটা থেকেই পড়ছে লাইন। তাতে পেনশন হোল্ডারদের লাইন যেমন দীর্ঘ তেমনি সাধারন মানুষও রয়েছেন। তবে এই সময় রাজ্য সরকারের দেওয়া বৃদ্ধ ও বিধবা ভাতা বাবদ মাসিক হাজার টাকা বেশ কাজে লাগছে গরিব অসহায় মানুষদের। বোলপুরের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের সামনে অপেক্ষারত এক বৃদ্ধা বলেন, সরকার থেকে মাসে এক হাজার টাকা দেয়। সেই টাকা নিয়েই আমরা কোনরকমে খেয়ে পড়ে বেঁচে আছি।

কোরনা আবহে গত বছরের মার্চ থেকে দীর্ঘ কয়েকমাস মানুষ একরকম কর্মহীন হয়ে পড়ে। মাঝে পরিস্হিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেও ফের কোরনার দ্বিতীয় ঢেওয়ে বিধিনিষেধ চালু হওয়াই সমস্যায় পড়েছে আমজনতা। সাধারন কাজকর্ম সেভাবে নেই। বোলপুর শহরের টোটো চালক সুনীল দাস বলেন, টোটো বেড় করেও লাভ নেই। মানুষতো সেভাবে যাতায়াত করছে না। তাই লোকসান চলছে। কি করে চলবে সেটাই সমস্যার। এখন পরিস্হিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বেশ সমস্যায় পড়ে রয়েছেন আমজনতা।