বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তা দিবসে বর্ধমানের দোকানে হানা।

লুতুব আলি, বর্ধমান, নতুন গতি : বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তা দিবসে বর্ধমানের দোকানে হানা। ৭ জুন বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তা দিবস উপলক্ষে বর্ধমানের দোকানে দোকানে হানা দিল স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। সাগৌরবে পালিত হচ্ছে বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তা দিবস। অন্যদিকে অসাধু দোকানদাররা বাসি খাবার টাটকা বলে চালিয়ে দিচ্ছে ক্রেতাদের। বিশ্ব খাদ্য নিরাপত্তা দিবস টিকে বেছে নিল বর্ধমানের অগ্রজ স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বর্ধমান সদর প্যায়ারা নিউট্রিশন ওয়েলফেয়ার সোসাইটি। এদিন এই স্বেচ্ছা সেবী সংস্থা এবং ফুড সেফটি বিভাগ ডিপার্টমেন্ট অফ হেলথ এন্ড ফ্যামিলি ওয়েলফেয়ার পশ্চিমবঙ্গ, বর্ধমান সদর থানার সহযোগিতায় বর্ধমান শহরের বিবেকানন্দ কলেজ মোড় এলাকায় বিভিন্ন খাবারের দোকানে হানা দিয়ে বাসি খাবার ফেলে দিল। ফলের দোকানকে কার্বাইড ব্যবহার না করার পরামর্শ দেওয়া হয় এবং কার্বাইড ফেলে দেওয়া হয়। বর্ধমান ফোরাম অফ সিটিজেন এন্ড কনজিউমার প্রটেকশন এর সভাপতি কাজী মোঃ গোলাম মইনুদ্দিন এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এবং তিনি চান এভাবেই ক্রেতাদের সুরক্ষিত রাখতে খাদ্যের নিরাপত্তা একান্ত আবশ্যক। সংস্থার সম্পাদক প্রলয় মজুমদার, পূর্ব বর্ধমানের ডেপুটি সি এম ও এইচ ২, ডঃ সুবর্ণ গোস্বামী প্রমুখদের উদ্যোগে এবং পরামর্শে এই সচেতনতা মূলক অনুষ্ঠান এবং খাদ্য নিরাপত্তার বিষয়টি সুনিশ্চিত করা হয়। পথচলিত মানুষকে এবং ক্রেতা ও বিক্রেতা সকলকেই লিফলেট বিলি করে খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ের উপর সচেতনতার বার্তা দেওয়া হয়। বর্ধমান শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন দোকানে বাসি খাবার টাটকা বলে চালিয়ে দেওয়া হয় এই ধরনের অভিযোগ পাওয়ার পরই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি সংশ্লিষ্ট দপ্তর গুলিকে নিয়ে এদিন যে অভিযান চালান তা বর্ধমান শহরের মানুষ সন্তোষ প্রকাশ করেন।