উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষা নিয়োগ এর ইন্টারভিউ শুরু আগামী উনিশে জুলাই: ব্রাত্য বসু

নতুন গতি ওয়েব ডেস্ক: উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের জন্য ইন্টারভিউ শুরু হবে আগামী ১৯ জুলাই। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এ কথা জানিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য পাওয়া যাবে ওয়েবসাইটে। আদালতের নির্দেশ মেনে নিয়োগ সম্পন্ন হবে। ১৫ হাজার ৪০৬ জন প্রার্থীর তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। ইন্টারভিউ শুরু হবে ১৯ জুলাই।   প্রার্থী নিয়োগ সংক্রান্ত তথ্য জানা যাবে www.westbengalssc.com –ওয়েবসাইটে।ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া চলবে ৪ অগাস্ট পর্যন্ত।মোট শূন্যপদ ১৪ হাজার ৩৩৯।

উল্লেখ্য, হাইকোর্টে জট খুলতেই উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগী উদ্য়োগী হয়েছে রাজ্য। গত সপ্তাহেই জানানো হয়েঠিল,  আগামী সপ্তাহ থেকে উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরুর চেষ্টা করা হবে। এসএসসি-র চেয়ারম্যান গত শনিবার জানিয়েছিলেন. তালিকায় যাঁদের নাম নেই, তাঁরা অভিযোগ জানাতে পারবেন। কীভাবে অভিযোগ জানানো যাবে, মঙ্গলবারের মধ্যে ওয়েবসাইটে জানানো হবে।

শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছিলেন যে,  স্বচ্ছতা বজায় রেখে এবার থেকে  প্রতি বছরই এসএসসি এবং প্রাথমিকে টেট আয়োজন করবে রাজ্য সরকার। এসএসসিতে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ তুলে নেওয়ায় আদালতকে ধন্যবাদ জানিয়েছিলেন তিনি।

২০১৫ সালে এসএসসি-র আপার প্রাইমারির টেট হলেও আইনি জটিলতায় এতদিন থমকে ছিল নিয়োগ প্রক্রিয়া। চলতি মাসের ৯ তারিখ, সেই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় জট কাটে। মামলার ওপর থেকে অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ তুলে নেয় কলকাতা হাইকোর্ট। নিয়োগ প্রক্রিয়া চালানোর নির্দেশ দেন বিচারপতি। সেই মতো, মেরিট লিস্ট তৈরি করে রাজ্য সরকার। কিন্তু চাকরি প্রার্থীদের একাংশ সেই লিস্টে অনিয়মের অভিযোগ তোলে।

সেক্ষেত্রে হাইকোর্ট জানায়, ২ সপ্তাহের মধ্যে চাকরিপ্রার্থী অভিযোগ জানাতে পারবে। অভিযোগপত্র হাতে পাওয়ার পর, ১০ সপ্তাহের মধ্যে অভিযোগের নিষ্পত্তি করতে হবে।

কিন্তু এরপরও, নিয়োগপ্রক্রিয়া স্থগিতের আবেদন জানান চাকরিপ্রার্থীরা। হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে মামলা করেন কয়েকজন পরীক্ষার্থী। এই পরিস্থিতিতে, কর্মসংস্থানকেই গুরুত্ব দিল শিক্ষা দফতর।

কমিশনের তরফে, চারটি হেল্পলাইন নম্বর প্রকাশ করা হয়েছে। সেগুলি হল-
৯০৫১১৭৬৪০০
৯০৫১১৭৬৫০০
৯৮৩০৪৫৪২১৮
৯৮৩০৪৫৪২১৯

শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই, ১০ হাজার ৫০০ প্রাথমিক শিক্ষকপদে নিয়োগের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। www.wbbpe.org- এই ওয়েবসাইটে এই সংক্রান্ত বিশদ তথ্য জানা যাবে।