১৫ টি দুর্গাপুজো কমিটিকে আর্থিক অনুদান, দুবরাজপুর পৌরসভার

সেখ রিয়াজুদ্দিন,বীরভূম:- দেখতে দেখতে ঘনিয়ে এলো দুর্গাপূজা।ইতিমধ্যে মন্ডপে মন্ডপে প্যান্ডেল সহ আনুসাঙ্গিক কাজকর্ম শুরু হয়ে গেছে।বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গোৎসব,যা এবছর আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভ করেছে।রাজ্যবাসী তথা বাঙালীর এ এক পরম প্রাপ্তী, সেইসাথে মুখ্যমন্ত্রী প্রেরিত সার্বজনীন দুর্গা পূজা কমিটিকে দেওয়া পঞ্চাশ হাজারের পরিবর্তে এবার দেওয়া হয়েছে ষাট হাজার টাকা।যাহা ইতিপূর্বে পুজা কমিটির হাতে স্থানীয় থানার মাধ্যমে প্রদান করা হয়। মঙ্গলবার দুবরাজপুর পৌরসভার উদ্যোগে পৌর এলাকার ১৫ টি দুর্গাপুজা কমিটির হাতে ছয় হাজার টাকা করে আর্থিক অনুদান দেওয়া হয় এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।

উল্লেখ্য, দুবরাজপুর পৌরসভা এলাকায় রয়েছে ৩৭ টি দুর্গাপুজো, যারমধ্যে রাজ্য সরকার কর্তৃক ২২ টি দুর্গাপুজো কমিটি ষাট হাজার টাকার অনুদান আগেই পেয়ে গেছে। বাকি ১৫ টি পুজো কমিটি রাজ্য সরকারের অনুদান না পাওয়ায় তাদের ব্যয়ভার কিছুটা লাঘব করার জন্য দুবরাজপুর পৌরসভার উদ্যোগে তাদের হাতে ছয় হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করা হয়। দুবরাজপুর পৌরসভার পৌর প্রধান পীযূষ পাণ্ডে জানান, গত বছর থেকে এই সমস্ত পুজো কমিটিগুলোকে আর্থিক অনুদান দেওয়া শুরু হয়েছে পৌরসভার পক্ষ থেকে।জানি সামান্য টাকায় সেরকম কিছু হবে না, তবুও ব্যয়ভার কিছুটা লাঘব করার প্রচেষ্টা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দুবরাজপুর পৌরসভার পৌর প্রধান পীযূষ পাণ্ডে, উপ পৌর প্রধান মির্জা সৌকত আলী, দুবরাজপুর থানার ওসি আফরোজ হোসেন, দুবরাজপুর পৌরসভার নির্বাহী আধিকারিক কমলকান্তি দাস, কাউন্সিলার সেখ নাজির উদ্দিন, বনমালি ঘোষ, সনাতন পাল, সুভাষ মেটে, বুল্টি চক্রবর্তী, সোনামনি বাগদি, সাবিনা খাতুন, শিক্ষক নেতা অরিন্দম চ্যাটার্জি সহ পুজো কমিটির সদস্যরা। দুবরাজপুর থানার ওসি শব্দ দূষণ নিয়ে মানুষকে একটু সজাগ থাকতে বলেন, তবে গত বছরের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন এবং এখানে শান্তিপূর্ণ ভাবে পুজো হয়ে থাকে সে কথাও তুলে ধরেন।