২৬নং আয়মাচক বুথে ISF কর্মী ও বুথ এজেন্ট দের হুমকি! অভিযোগ তৃণমূলের দিকে

২৬নং আয়মাচক বুথে ISF কর্মী ও বুথ এজেন্ট দের হুমকি! অভিযোগ তৃণমূলের দিকে

 

নিজস্ব সংবাদদাতা, হাওড়া : ১৮৩,জগতবল্লভপুর বিধানসভা কেন্দ্র,২৬নং আয়মাচক বুথ। ৬ তারিখ অর্থাৎ ভোটের দিন সকাল থেকেই ISF কর্মী ও বুথ এজেন্ট দের হুমকি দেয়া হয়।ভোট পর্ব চলাকালীন তৃণমূল জোরপূর্বক বেশ কিছু ভোট দিয়ে উদ্যত হয়,সঙ্গে সঙ্গে ISF বুথ এজেন্ট তা প্রতিবাদ করে প্রিসাইডিং অফিসার সহ কর্তব্যরত পুলিশ জওয়ান দের দৃষ্টি আকর্ষণ করে।যথাস্থানে তৃণমূল এর গুন্ডা দুষ্কৃতী হুমকি দেয় যে বাইরে বেরোলে দেখে নেবে।তার পর ও প্রতিবাদ সত্ত্বেও আবার ও অনেক জোরপূর্বক প্রবাসী ভোট গুলো দেয়।এমত অবস্থায় রেলিভিং এজেন্ট বাইরে টয়লেট ও চা খেতে যাওয়ায় তাকে পেছন দিক থেকে মাথায় আঘাত করা হয়।সঙ্গে সঙ্গে অজ্ঞান হয়ে পড়ে ,এই অবস্থাতেই আবারও বুকে লাঠি,কিল ,চড় দিয়ে মৃত্যু সায়ন্ন্যে উপনীত হয়ে যায়।পাশের কিছু শুভাকাঙ্খী মানুষ শান্তিপ্রিয় মানুষ মারের আওয়াজ শুনতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে আধা মৃত অবস্থায়।তার পর স্থানীয় হসপিটালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।মাথা ফাটার কারণে আর মাথায় আঘাত এর জন্য CT SCAN ও অন্যান্য রিপোর্ট এর পরামর্শ দিয়েছেন ডক্টর।এদিকে ভোটের ঠিক শেষে TMC পার্টি বোমা,বাঁশ, অন্যান্য ধারালো অস্ত্র নিয়ে পোলিং স্টেশন স্কুল এর নিকটে জড়ো হয়।গোপন সূত্রে ISF এর ছেলেরা জানতে পেরে কর্তব্যরত পুলিশ ও থানাকে এই ব্যাপারে ওয়াকিবহল করে।বাইরের ISFকর্মীরা প্রাণ বাঁচাতে সরে যায় কিন্তু পোলিং এজেন্ট রা নিরুপায় তারা পুলিশ এর পাহারায় বেরিয়ে যায় যদিও তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা হামলা চালায়।এর কিছুক্ষণ পর এদিকে এজেন্ট দের বাড়িতে হামলা চালায় ,বাড়ি স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি নারী বাচ্ছা কাউকে ছাড়েনি।বাড়ি ভাবগচুর করে,এর অনতিবিলম্বে পরে পরের কর্মীর বাড়ির দিকে আক্রমণে অগ্রসর হলে ফোর্স উপস্থিত হয়,তৃণমূল এর গুমদা বাহিনী কে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।রাত্রে পুলিশি টহল দারী ছিল বলে এরকম কোন ঘটনা হয়নি।আজ সকালে রফিকুল নামক অন্য এক ISF কর্মী পাড়ার চায়ের দোকানে বেরোলে তাকে জগতবল্লভপুর ১ তৃণমূলের সভাপতি ও জগতবল্লভপুর ১ এর উপপ্রধান সহ কিছু তৃণমূলের গুন্ডা মিলে বেধড়ক মারধর করে।