কুরআন ক্যুইজ ও প্রবন্ধ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।

নিজস্ব সংবাদদাতা : পশ্চিমবঙ্গ উর্দু অ্যাকাডেমিতে ‘দ্য কুরআন স্টাডি সার্কেল’ আয়োজিত আল কোরআন একাডেমী লন্ডনের এর সহযোগিতায় ‘দ্বিতীয় কুরআন-কুইজ’ ও ‘প্রথম প্রবন্ধ’ প্রতিযোগিতায় সফলদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান করা হয়। একইসঙ্গে কুরআন পাঠের গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। এদিনের আলোচনাসভায় বিশিষ্টরা কুরআন পাঠের গুরুত্ব, নবী. সা.-এর জীবন ও আদর্শ জানার পরামর্শ দেন।

    ২য় কুরআন ক্যুইজ প্রতিযোগিতায় রাজ্যের মধ্যে প্রথম হয়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলার সাইফুর রহমান দ্বিতীয় হয়েছেন হাওড়া জেলার ডক্টর শেখ নজরুল ইসলাম তৃতীয় হয়েছেন মুর্শিদাবাদ জেলার আসমা আফিয়া।

    প্রবন্ধ প্রতিযোগিতায় রাজ্যের মধ্যে যুগ্মভাবে প্রথম হয়েছেন জুবায়ের আহসান নিগার,সেখ আসিক ইলাহি, যুগ্মভাবে দ্বিতীয় হয়েছেন সাইদ হোসেন সিদ্দিকী ও নওসিবা আহসান নিগার তৃতীয় হয়েছেন সবনম বানু।

    এদিনে আলোচনাসভায় আমানত ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ শাহ আলম কুরআনের গুরুত্ব আলোচনা করেন। কুরআনের আয়াত উল্লেখ করে তিনি বলেন, পারিবারিক, সামাজিক জীবনযাপনে কুরআনকে আঁকড়ে ধরতে হবে। বড়দের সম্মান করা এবং ছোটদের স্নেহের কথা শেখায় কুরআন। পীরজাদা মুহাম্মদ তামীম উদ্দিন সিদ্দিকী বলেন, কুরআনের আলোকেই আমাদের জীবনযাপন করা জরুরি। পাপ করতে করতে আমাদের অন্তর কালো হয়ে যায়। সেই অন্তরকে জাগ্রত করে তোলার জন্য কুরআন পাঠ প্রয়োজন।

    এদিনের অনুষ্ঠানে এসআইও-র রাজ্য সভাপতি সাইদ মামুন দ্বীন ও দুনিয়া শিক্ষার কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, সাধারণ বিষয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি দ্বীনে শিক্ষাও গ্রহণ করতে হবে। শিক্ষা ও কর্মের জন্য সুস্থ শরীরের প্রয়োজন। তাই শরীরকে সুস্থ ও মজবুত রাখতে আমাদের কুরআন পাঠ গ্রহণ করতে হবে। কারণ আমাদের মস্তিষ্কে সুস্থ ও সঠিকভাবে পরিচালনার ক্ষেত্রে কুরআন পাঠ যথেষ্টভাবে সহায়তা করে থাকে।

    অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দ্য কুরআন স্টাডি সার্কেল-এর সাধারণ সম্পাদক জালালউদ্দিন আহমেদ, মুহাম্মদ নুরুদ্দিন শাহ, আবু সিদ্দিক খান, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ-মসজিদের ইমাম আশাদুল হোসেন, রাজাবাজার মসজিদের ইমাম উজায়ের আলম, প্রাক্তন শিক্ষক মাসুদুল আলম, গোলাম মুহাম্মদ লাডলা, বনি আমিন মিদ্যা, মুহাম্মদ আরিফুল্লাহ, শাহনেওয়াজ খান,আব্দুস সালাম, মাওলানা রফিকুল ইসলাম তরফদার, জিয়ারুল লস্কর, সাহিদ হোসেন সিদ্দিকী,রাজেশ কবির, আব্দুল হাকিম,দেবরঞ্জন লাই প্রমুখ। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিশিষ্টরা বুঝে কুরআন পাঠ করার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি নবী সা.-এর জীবন-সংগ্রাম সম্পর্কেও জানার কথা বলেন। তাঁরা বলেন, জীবন-সংগ্রামের মাধ্যমেই মানুষকে অন্ধকার জীবন থেকে মুক্তি লাভের পথ দেখিয়েছেন নবী সা.। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন দ্য কুরআন স্টাডি সার্কেলের রাজ্য কনভেনার মাওলানা মুহাম্মদ রাকিব হক। মানুষের ঘরে ঘরে কুরআনের অনুবাদ পৌঁছে দেওয়ার কথা বলেন তিনি। মুহাম্মদ রাকিব আরও বলেন, অনলাইনে ‘কুরআন-কুইজ ও প্রবন্ধ প্রতিযোগিতা’ হয়েছে। এই প্রতিযোগিতায় সফলদের পুরস্কার দেওয়া হয় এদিন। খুব শীঘ্রই ‘তৃতীয় অনলাইন কুরআন প্রতিযোগিতা’র আয়োজন করা হচ্ছে দ্য কুরআন স্টাডি সার্কেলের পক্ষ থেকে।