পুনরায়ে বৃষ্টির পূর্বাভাসে আলু এবং ধান নিয়ে চিন্তায়ে মালদার কৃষকরা, আশ্বস্ত করল আবহাওয়া দপ্তর

নতুন গতি নিউজ ডেস্ক: বঙ্গপসাগরে “জাওাদ” ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পড়তে পারে মালদা জেলাতেও এরকম সতর্কতা ছিল। ওড়িশা ও অন্ধ্র উপকূলে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকলেও, রবিবার এবং সোমবার মালদা জেলায়ে খুব হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। রবিবার এবং সোমবার জেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত ভাবে হাল্কা বৃষ্টি হতে পারে। এই সময় জরুরী ভিত্তিতে কেটে ফেলা ধান সুরক্ষিত জায়গায়ে মজুত করার পরামর্শ আগেই দিয়েছে কৃষি বিভাগ। কেটে ফেলা ধান কোনভাবেই মাঠে ফেলা রাখা যাবেনা। উপরদিকে ফলন মার ক্ষেতে পারে সবজি এবং আলু চাষিরা, তাতে উদ্বিগ্ন ছিলেন মালদার কৃষকরা। তাই মালদা কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্রের কৃষি আবহাওয়া বিজ্ঞানী শ্রী. দেবজ্যোতি মজুমদার মহাশয় জানান আমরা অনেক আগেভাগেই মালদা জেলার চাষি ভাইদের অকাল অকালে বৃষ্টির আগাম সতর্কবার্তা দিয়েছিলাম। আশাকরি চাষি ভাইয়েরা উপকৃত হয়েছেন। তবে তিনি এও জানিয়েছেন এবং আশ্বস্ত করেছেন বর্তমান অবস্থায়ে মালদা জেলা সহ উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা অনেকটাই কেটে গিয়েছে। আপাতত অন্ধ্র- উড়িষ্যা উপকূলে আছড়ে পরবে সাইক্লোনটি।

ফলস্বরূপ মালদা জেলাতে বিক্ষিপ্ত স্থানে হাল্কা বৃষ্টি হলেও ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা কম। বর্তমান আলু চাষিদের অনুরধ করা হচ্ছে যাতে বৃষ্টি পরবর্তী সময়ে ধ্বসা রোগ লাগার জন্যে প্রতিষেধক স্প্রে করেন। সব্জির চারা সম্ভব হলে পলিথিন শিট দিয়ে ঢেকে রাখা যেতে পারে। তিনি এও জানান এখনই চিন্তার কোন কারন নেই। সরকারি আদেশ মেনে চলতে তিনি অনুরোধ করেছেন।