উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সাংসদের থেকে প্রাপ্য টাকা নিতে গিয়ে নিখোঁজ মালদার শ্রমিক

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদা: উত্তরপ্রদেশের আজমগরের বিজেপি সাংসদ তথা ঠিকাদার রমাকান্ত যাদবের কাছে পাওনা টাকা আনতে গিয়ে রহস্য জনক ভাবে নিখোঁজ হয়ে গেলেন মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুরের এক শ্রমিক সর-বরাহকারী ঠিকাদার। অপহরণের অভিযোগ করলেন নিখোঁজ হয়ে যাওয়া ঠিকাদারের পরিবার।

নিখোঁজ হয়ে যাওয়া ওই ঠিকাদারের না মুখলেসুর রহমান(৩২)। মুখলেসুরের বাড়ি হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার সুলতান নগর গ্রাম পঞ্চায়েতের ডাটিয়ন গ্রামে। মুখলেসুর আবার সুলতান নগর গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের সদস্যা সোফিয়া বিবির দেওর । পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায় মুখলেসুর রহমান বেশ কয়েক বছর যাবৎ এলাকা থেকে শ্রমিক সংগ্রহ করে ভিন রাজ্যে বিভিন্ন ঠিকাদারের কাছে পাঠাতেন। সে রকমই উত্তরপ্রদেশের আজমগরের বিজেপির সাংসদ তথা ঠিকাদার রামাকান্ত যাদবের কাছেও এলাকা থেকে শ্রমিক পাঠিয়ে ছিলেন। কিন্তু দীর্ঘদিন থেকে সেই বাবদ টাকা বকেয়া পড়েছিল। বারবার তাগাদা করেও না পেয়ে বাধ্য হয়ে গত মাসের ২৬ তারিখ তিনি উত্তরপ্রদেশের আজামগড় যান। সেখান থেকে গত মাসের ২৮ তারিখ বাড়িতে ফোন করে জানান তিনি তার পাওনা টাকা নিয়ে রওনা হচ্ছেন এবং আজামগড় স্টেশনে এসে পৌঁছেছেন। সেই স্টেশন থেকে তিনি হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকার এক বন্ধুকে ফোন করেন। কাটিহার গামী ট্রেনের সময়সূচী জানবার জন্য। বন্ধুকে প্রমাণ স্বরূপ আজামগড় স্টেশনের হর্ডিং এর ছবি পাঠান মোবাইলে। বাড়ির লোকেরও দাবি সেই দিনই তার সঙ্গে শেষ কথা হয়েছিল পরিবারের। ফোনে তিনি জানিয়েছিলেন সাংসদের কাছে টাকা নিতে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা হয়নি। কিন্তু সংসদের আপ্তসহায়ক তাকে টাকা দিয়েছেন। এবং জানান তিনি আজম গড় থেকে রওনা হচ্ছেন।কিন্তু তারপর থেকে রহস্য জনক ভাবে উধাও হয়ে যান তিনি। এরপর তাকে ফোন করলে জানা যায় সেই ফোন সুইচ অফ আছে। বিভিন্ন ভাবে পরিবারের লোক সেটা খোঁজ নেওয়ার চেষ্টা করলেও তার কোন খোঁজ মিলছে না। পরিবারের অভিযোগ ছেলের উধাও হয়ে যাওয়ার পেছনে অপহরণের গন্ধ আছে। পরিবারের লোকেদের দাবি ছেলে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া নিয়ে যেন সঠিক তদন্ত করে পুলিশ। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।শাসকদলের পরিবারের ছেলের উত্তরপ্রদেশে বিজেপি শাসিত এলাকায় নিখোঁজ হয়ে যাওয়ায় চাপানউতোর শুরু হয়েছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকায়। তৃণমূলের দাবি উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা বলেই মুখলেসুর উত্তরপ্রদেশে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছেন বলে মনে করছেন। তাকে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ তৃণমূলের বিধায়ক তজমুল হোসেনের। অন্যদিকে বিজেপির দাবি এভাবে আগাম অভিযোগ করা ঠিক নয়। সবকিছুই খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু।

মালদা থেকে পার্থ ঝায়ের রিপোর্ট।