ফুচকা খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লেন শতাধিক গ্রামবাসী ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পোলবায়

নিজস্ব সংবাদদাতা : ফুচকা খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লেন শতাধিক গ্রামবাসী। বমি, পেটের যন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি অনেকে । বিষক্রিয়ার ফলে সকলের ডায়েরিয়া হয়ে গিয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। এই ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পোলবায় । হুগলি জেলার পোলবার সুগন্ধা গ্রাম পঞ্চায়েতের দোগাছিয়ার ঘটনা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার সন্ধেয় এক ফুচকা  বিক্রেতার কাছ থেকে ভিড় করে ফুচকা খান গ্রামের মানুষ জন। তার পর থের বুধবার থেকে একে একে অসুস্থ হয়ে পড়তে শুরু করেন অনেকে। পেটের যন্ত্রণা, বমির পাশাপাশি বার বার শৌচাগারে ছুটতে হয় তাঁদের। এতটাই অসুস্থ বোধ করেন কিছু মানুষ যে, হাসপাতালে পর্যন্ত ভর্তি হতে হয় তাঁদের। বমি, পেটের যন্ত্রণার উপসর্গ নিয়ে চুঁচুড়া ইমামবাড়া, চন্দননগর মহকুমা এবং পোলবা ব্লক হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন অনেকেই (Hospital Admission)। হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন যাঁরা, তাঁদের মধ্যে দোগাছিয়া, বাহির রানাগাছা, মাকালতলার বাসিন্দারাই মূলত রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত সেই নিয়ে টানাপোড়েন চলেছে। এ দিন সকালেও বেশ কিছু মানুষ নতুন করে অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে খবর।

 

প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, ফুচকায় বিষক্রিয়ার ফলে ডায়েরিয়া কাবু করে ফেলেছে গ্রামবাসীদের। এমন পরিস্থিতিতে এ দিন গ্রামে পৌঁছন স্বাস্থ্য দফতরের প্রতিনিধি দল। গ্রামবাসীদের ওষুধ-সহ স্বাস্থ্য সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেন তাঁরা। এ ছাড়াও, এ দিন পোলবা ব্লক হাসপাতাল থেকে একটি মেডিক্যাল টিম গ্রামে পৌঁছয়। যাঁরা গুরুতর অসুস্থ, তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। অল্প অসুস্থ যাঁরা, বাড়িতেই তাঁদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ওষুধ দেওয়ার পাশাপাশি, কী খাবেন, কী খাবেন না, তা বোঝানো হয়েছে সকলকে। খাওয়ার আগে সাবান দিয়ে ভাল করে হাত ধোওয়ার প্রয়োজনীয়তার কথাও বোঝান স্বাস্থ্যকর্মীরা। এই ঘটনায় স্বাভাবিক ভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। ফুচকা খেতে গিয়ে এমন বিপদে পড়তে হবে, তা কল্পনাও করতে পারেননি তাঁরা। বিষয়টি খতিয়ে দেখছে স্থানীয় প্রশাসন।