দুই প্রাপ্তবয়স্ক যদি স্বেচ্ছায় একসঙ্গে শান্তিতে জীবনযাপন করতে চাই তাহলে নাক গলানোর কারও অধিকার নেই: স্পষ্ট জানাল এলাহাবাদ হাইকোর্ট

নতুন গতি ওয়েব ডেস্ক: শুধু বিবাহের জন্য ধর্মান্তকরনের কোন যৌক্তিকতা নেই, বিয়ে করার জন্য শুধু ধর্ম পরিবর্তন করা বলবৎ নয় বলে স্পষ্ট জানাল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। ভিন্ন ধর্মালম্বী এক যুগলের পিটিশন খারিজ করে এই কথা জানায় হাইকোর্ট। পিটিশনে বলা হয়েছিল যে পুলিশ ও মেয়েটির বাবা যেন দম্পতির বৈবাহিক জীবনে হস্তক্ষেপ না করে, সেই সংক্রান্ত নির্দেশ দিক আদালত। দুই প্রাপ্তবয়স্ক যদি স্বেচ্ছায় একসঙ্গে শান্তিতে জীবনযাপন করে তাতে নাক গলানোর অধিকার নেই কারও, জানিয়ে দিল এলাহাবাদ হাইকোর্ট। সম্প্রতি শাইস্তা পারভিন ওরফে সঙ্গীতা এবং তাঁর মুসলিম স্বামী হাইকোর্টে লিখিত আবেদন করে জানিয়েছিলেন, পরিবারের কাছে তাঁরা হেনস্থা হচ্ছেন। এলাহাবাদ হাইকোর্টেই ছয় বছর পুরনো নুর জাহান বেগম মামলায় আদালতের সামনে প্রশ্ন ছিল যে একটি হিন্দু মেয়ের ইসলাম সম্বন্ধে কোনও জ্ঞান না থাকা অবস্থায় কেবল মুসলমান ছেলের সঙ্গে বিয়ে করার জন্য ধর্ম পরিবর্তন করা কি বৈধ।

মুসলমানদের ধর্মীয় বই কোরানের সাহায্য নিয়ে এলাহাবাদ হাই কোর্ট তখন বলে যে এমন ক্ষেত্রে বিয়ের জন্য ধর্মপরিবর্তন ভ্যালিড নয়। এবার সেই রায়ই ফের ব্যবহার করল আদালত। দুই প্রাপ্তবয়স্ক যদি স্বেচ্ছায় একসঙ্গে শান্তিতে জীবনযাপন করে তাতে নাক গলানোর অধিকার নেই কারও। সম্প্রতি শাইস্তা পারভিন ওরফে সঙ্গীতা এবং তাঁর মুসলিম স্বামী হাইকোর্টে লিখিত আবেদন করে জানিয়েছিলেন, পরিবারের কাছে তাঁরা হেনস্থা হচ্ছেন। নুর জাহান বেগম মামলায় ২০১৪ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্ট বলেছিল যে শুধু বিয়ের জন্য ধর্মান্তকরণ মেনে নেওয়া যাবে না। সেই মামলার প্রসঙ্গ টেনেই পিটিশনটি এদিন খারিজ করে দেয় আদালত। দুই প্রাপ্তবয়স্ক যদি স্বেচ্ছায় একসঙ্গে জীবনযাপন করতে পারে।