ক্যুইজ কেন্দ্র ও সহযোগী বন্ধুদের উদ্যোগে ত্রাণ বিতরণ

নিজস্ব সংবাদদাতা,কাঁথি পূর্ব মেদিনীপুর :
ঘুর্ণিঝড় ইয়াস ও সেদিনের ভরা কোটালের পর থেকে সদস্য-সদস্যা ও শুভানুধ্যায়ীদের সহযোগিতায় কখনো এককভাবে কখনো যৌথ উদ্যোগে ধারাবাহিকভাবে ত্রাণ বিতরণ করে চলেছে মেদিনীপুর ক্যুইজ কেন্দ্র সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটি। ইতিমধ্যেই ঝড় ও জলোচ্ছ্বাস কবলিত পূর্ব মেদিনীপুর জেলার প্রায় সব ব্লকে সংস্থার সদস্যরা সেখানকার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে সংগঠনের পক্ষ থেকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।সম্প্রতি মেদিনীপুর ক্যুইজ কেন্দ্র ও সহযোগী বন্ধুদের উদ্যোগে আবারও ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হলো কাঁথি সংলগ্ন শৌলা মৎস্য বন্দর এলাকায়। স্থানীয় নয়াপুর সুধীর বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বসন্ত কুমার ঘোড়াই ,ত্রাণ সামগ্রী বন্টনে অসহায় মানুষদের চিহ্নিত করে এই কাজে ক্যুইজ কেন্দ্র ও সহযোগীদের বিশেষভাবে সহযোগিতা করেন। এদিন
রামনগর ২ নম্বর ব্লক ও কাঁথি ১ নম্বর ব্লকের,রঘুসর্দারবাড় জলপাই ,দক্ষিণ পুরুষোত্তমপুর এলাকার প্রায় পাঁচশোটি পরিবারের হাতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয় শৌলা মৎস্য বন্দর সংলগ্ন গঙ্গা মন্দির প্রাঙ্গণে।

 

ক্যুইজ কেন্দ্রের এদিনের কর্মসূচিতে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করেন কলকাতা সংলগ্ন মধ্যমগ্রামের ৯ জন বন্ধুদের একটি দল। এই দলে ছিলেন বাপি, রাজু, বিশ্বজিৎ,প্রদীপ,রাজা, বুবাই, বুড়ো,কার্তিক, সমীর প্রমুখ।এছাড়াও সঙ্গে ছিলেন অজয,হরি, ছোটকা, উত্তম,সুরজিৎরা। এই বন্ধুরা কোনো সংস্থা হিসেবে নন, সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত উদ্যোগে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার দুর্গত মানুষদের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসেছেন। অন্যদিকে সংগঠনের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার সম্পাদক কৃষ্ণপ্রসাদ ঘড়ার নেতৃত্বে মেদিনীপুর ক্যুইজ কেন্দ্রে সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন কৃষ্ণপ্রসাদ ঘড়া, সৌমেন গায়েন, অপূর্ব কুমার জানা, হারাধন মনি, দিব্যেন্দু রায়, বিশ্বজিৎ পাত্র সহ অন্যান্যরা।কর্মসূচি সুষ্ঠু ভাবে রূপায়িত হওয়ার জন্য ক্যুইজ কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক সুজন বেরা,সভাপতি রিংকু চক্রবর্তী ও প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক মৌসম মজুমদার সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।