বিপুল টাকা ব্যয়ে নির্মাণ হয়েছিল গার্ডওয়াল প্রাচীর কিন্তু ১৩ দিনের মাথায় ভেঙ্গে পড়ার ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে

নিজস্ব সংবাদদাতা : পুকুর পাড় দিয়ে রাস্তা তৈরি করতে বিপুল টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছিল বিশালাকারের গার্ডওয়াল প্রাচীর। কিন্তু নির্মাণের মাত্র ১৩ দিনের মাথায় ভেঙে পড়ল সেই মজবুত প্রাচীর। মুর্শিদাবাদের ধুলিয়ান পৌরসভার উদ্যোগে মোটা অঙ্কের টাকা খরচ করে নির্মিত সেই প্রাচীর মাত্র ১৩ দিনের মাথায় ভেঙ্গে পড়ার ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

কাজের গুনগত মান নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বিপুল পরিমাণ টাকা খরচ করে ধূলিয়ান পুরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পুকুর পাড়ে এই সুবিশাল গার্ডওয়াল প্রাচীর তৈরি করার মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই কি করে তা ভেঙ্গে পড়েছে তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।উল্লেখ করা যেতে পারে, ধুলিয়ান পৌরসভার অন্তর্গত ৬ নম্বর ওয়ার্ডের শিবমন্দির বাজার এলাকা থেকে নতুন বসতি জগন্নাথ লজ পর্যন্ত আসার জন্য তৈরি হচ্ছিল রাস্তা। প্রয়াত প্রাক্তন চেয়ারম্যান সুবল সাহার আমলে সেই রাস্তার টেন্ডার হয়। বিরোধী দল গুলির অভিযোগ, আনুমানিক ৪২ লক্ষ টাকা বরাদ্দ হয়েছিল এই প্রকল্পে।সম্প্রতি, পুকুর পাড়ে নির্মাণ করা হয়েছিল বিশালাকারের সেই টেন্ডারের গার্ডওয়াল প্রাচীর। মাস খানেক আগে সম্পন্ন হয়েছিল সেই প্রাচীর। কিন্তু অভিযোগ, মাত্র ১৩ দিনের মাথায় সেই গার্ডওয়াল ভেঙ্গে পড়ে। আর তা নিয়েই কার্যত প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বিষয়টি নিয়ে ধুলিয়ান পুরসভার চেয়ারম্যান ইনজামামূল ইসলাম জানান, কাজটা এখনও চলছে। গার্ডওয়ালের নীচের মাটি সরে যাওয়ার কারনে সেটি বেকিয়ে গেছে। এটা আমাদের বিল হয়নি। সুতরাং কনট্যাক্টরকে পুনরায় কাজ করতে হবে। এটা পুরাতন ওয়ার্ক অর্ডার।এদিকে গার্ডওয়ালের বসে যাওয়ার ঘটনায় চেয়ারম্যান সাফাই দিলেও পুরো কাজের তদন্তের দাবিতে সরব হয়েছেন ধুলিয়ান পুরসভার বিরোধী দলনেতা তথা আট নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পারভেজ আলম পুতুল থেকে শুরু করে স্থানীয় বাসিন্দারা। যদিও ঘটনার জেরে পৌর এলাকার বাসিন্দারা বেজায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।