চলন্ত টোটোর মধ্যেই সন্তান প্রসব করলেন প্রসূতি

নিজস্ব সংবাদদাতা:  চলন্ত টোটোর মধ্যেই সন্তান প্রসব করলেন প্রসূতি। শুক্রবার রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে রায়গঞ্জ শহরের বকুলতলা এলাকায়। টোটোর চারিদিকে পর্দা টাঙ্গিয়ে একটি পুত্র সন্তান প্রসব হওয়ার পর সদ্যজাত সন্তান সহ প্রসূতি মা’কে নিয়ে যাওয়া হয় রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। স্বাস্থ্যকর্মীরা তড়িঘড়ি ওই রোগীকে টোটো থেকে স্ট্রেচারে নামিয়ে গাইনি বিভাগে ভর্তি করে।

মেডিকেল সূত্রে জানা গিয়েছে ওই প্রসূতির নাম ইসফা খাতুন (১৮) বাড়ি রায়গঞ্জ (Raiganj) থানার কর্ণজোড়া ফাঁড়ির অন্তর্গত ছটপারুয়া এলাকায়। এদিন রাত এগারোটা নাগাদ প্রসব বেদনায় কাতরাচ্ছিলেন ওই প্রসুতি। ১০২ অ্যাম্বুলেন্সকে বারংবার ফোন করেও কোনো সারা পাওয়া যায়নি। স্বাস্থ্যকর্মী অঙ্গনওয়ারী কর্মীকে বারবার ফোন করা হলেও কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। ফলে একপ্রকার বাধ্য হয়েই ওই প্রসূতিকে টোটোতে চাপিয়ে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়ার সময় রায়গঞ্জ শহরের বকুলতলা এলাকায় একটি পুত্র সন্তান প্রসব করে ফেলেন। সঙ্গে সঙ্গে ওই অবস্থায় রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে ওই প্রসূতি রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের গাইনো বিভাগের লেবার রুমে রয়েছে। গাইনোকোলজি বিভাগের চিকিৎসকদের বক্তব্য, মা সুস্থ থাকলেও সদ্যোজাত পুত্র সন্তান কেমন রয়েছে তার জন্য শিশু বিভাগের চিকিৎসককে ডাকা হয়েছে। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন শিশুটি প্রচণ্ডভাবে দুর্বল,তার খাবারের প্রয়োজন।