বিষাক্ত গোখরো সাপ উদ্ধার গঙ্গারামপুরে

দক্ষিণ দিনাজপুর: দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ড দত্তপাড়া এলাকার এক বাসিন্দা কৃষ্ণেন্দু ঘোষের বাড়ি থেকে উদ্ধার হল গোখরো সাপ। যাকে ইংরাজীতে স্পেকটকেল কোবরা বলা হয় এবং যেটাকে স্থানীয় ভাষায় গোমা সাপ বলে। সাপটি অত্যন্ত বিষাক্ত এবং এতে নিউরো টক্সিক বিষ থাকে। সপতি দেখতে পেয়ে পরিবেশ সচেতন কৃষ্ণেন্দু ঘোষের স্ত্রী মধুশ্রী সরকার সাপটিকে দেখতে পান এবং তৎক্ষণাৎ বিজ্ঞান মঞ্চে খবর দেন।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার সর্প বিশারদ কুন্তল মলাকারের কাছে সেই খবর পৌঁছায় এবং তিনি তৎক্ষণাৎ বালুরঘাট থেকে ছুটে আসেন সাপটিকে উদ্ধার করার জন্য।গঙ্গারামপুরে পৌঁছে তিনি সাপটি উদ্ধার করেন এবং তিনি জানান সাপটিকে বনদপ্তরের মারফত জঙ্গলে ছেড়ে দেয়া হবে। এছাড়াও তিনি দত্তপাড়া এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে সাপ সম্পর্কিত বিশেষ সচেতনতা প্রচার করেন। সাপ নিয়ে ভয় কাটাতে এবং সচেতন থাকতে কুন্তল কর্মকার বহুদিন ধরেই কাজ করে চলেছেন নিবিড়ভাবে। তিনি বলেন, “সাপ সম্পর্কে ভীতি নয় সচেতন থাকুন পরিবেশ রক্ষার্থে সাপের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পরিবেশের প্রতিটি প্রাণী সংরক্ষণে আমরা নিবিড়ভাবে কাজ করে চলেছি। যে কোনো বন্যপ্রাণীর সন্ধান পেলে অযথা আতঙ্কিত না হয়ে আমাদের খবর দিন আমরা উদ্ধার করব”। ঘোষ বাড়ির সকলেই ধন্যবাদ জনানা কুন্তল মালাকার এবং তার টিমকে। সাথে এলাকার বাসিন্দারা সাধুবাদ জানানা দম্পতি কৃষ্ণেন্দু ঘোষ এবং মধুশ্রী সরকারকে তাদের সচেতনতার জন্য। তবে এদিন গঙ্গারামপুর দত্তপাড়ায় ঘোষ বাড়িতে বিষাক্ত সাপ উদ্ধারের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে।