খড়গ্রাম বিধানসভার তৃণমূল প্রার্থী আশিষ মার্জিতের নির্বাচনী প্রচারে প্রাক্তন আই পি এস হুমায়ুন কবীর

 

জৈদুল সেখ,নতুন গতি, খড়গ্রাম:মানুষের মন জয় করতে কখনো পায়ে হেঁটে কখনো বা টোটো চালিয়ে ভোট প্রচারে তাক লাগাচ্ছেন মুর্শিদাবাদ জেলার খড়গ্রামের তৃণমূলের প্রার্থী আশিষ মার্জিত। অনেকেই তৃণমূল সমর্থন বলছেন তিনি ক্লান্তীহীন।

গত বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার লাগাতার খড়গ্রাম ব্লকের বালিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের নামপাড়া, সেখপাড়া, ডাঙ্গাপাড়া, চাঁদখালি, রায়পুর, মণ্ডলপুর, কেশবপুর টোটো চালিয়ে, কোথাও পায়ে হেঁটে বর্নাঢ্য শোভাযাত্রার মাধ্যমে গোটা গ্রামে ঘোরেন তিনি। সেই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর প্রত্যেকটি প্রকল্পের প্রচারও করেন। সাধারণ মানুষকে টোটোতে চাপিয়ে তাদের সুবিধা-অসুবিধার কথাও জেনে নেন। খড়গ্রাম বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী আশীষের এই অভিনব প্রচার দেখে অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন।

খড়গ্রাম বিধানসভার সার্বিক উন্নয়নের স্বার্থে মমতা বন্দোপাধ্যায় এর স্নেহধন্য প্রার্থী আশীষ মার্জিতকে পুনঃনির্বাচিত করার লক্ষ্যে রবিবার মুর্শিদাবাদ জেলার ৬৬ নম্বর খড়গ্রাম বিধানসভার অন্তর্গত শেরপুর এলাকায় আশিষ মার্জিতের সমর্থনে প্রাক্তন আই পি এস অফিসার হুমায়ুন কবীরের জনসভা উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেল।
উক্ত নির্বাচনী জনসভায় হুমায়ূন কবীর ছাড়াও, উপস্থিত ছিলেন জঙ্গীপুরের সাংসদ মাননীয় খলিলুর রহমান মহাশয়, প্রার্থী আশীষ মার্জিত এবং তৃণমূলের একাধিক কর্মী ও নেতৃত্ব।
উল্লেখ্য খড়গ্রাম বিধানসভায় প্রচারে অনেকটাই এগিয়ে তৃণমূল। খরগ্রাম কেন্দ্রে আশীষ মার্জিতের বিরুদ্ধে বিরোধী প্রার্থীর ভূমিকা এবার অনেকটাই ফ‌্যাক্টর হতে পারে বলেই অনুমান রাজনৈতিক মহলের। সংযুক্ত মোর্চার ভোট জমা হবে কংগ্রেস প্রার্থীর সমর্থনে, কিন্তু নিজস্ব সাংগঠনিক দক্ষতা কিছুটা দুর্বল আছে। জেতার সম্ভাবনা রয়েছে তৃণমূল বনাম জোটের। এখন দেখার বিষয় খেলা হবে নাকি উন্নয়নের লড়াই হবে, মানুষের রায় বলবে ২ মে।