গাঙ্গেয় সুন্দরবন এলাকায় দেখা মিলছে ভাসমান সব্জিক্ষেত

হাসান লস্কর বাবলু সুন্দরবন: বছরের পর বছর নেমে আসছে গাঙ্গেয় সুন্দরবন এলাকায় প্রাকৃতিক বিপর্যয়।এতেই সর্বস্বান্ত হচ্ছেন সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের মানুষজন। এই মুহূর্তে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন South Asian Forum For Environment. SAFE Non profit civil society organisation.For Environment and sustainable livelihood পক্ষ থেকে কুলতলির দেউলবাড়ীর সুন্দরবন বিট অফিস সংলগ্ন এলাকায় “ভাসমান বাগান” তৈরি করেছেন।

আগামী দিন গুলিতে রোদ জল বৃষ্টি সহ প্রাকৃতিক দুর্যোগে এই ক্ষেতের ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে না । কৃষি বিজ্ঞানীদের অভিপ্রায় যেভাবে প্রাকৃতিক বিপর্যয় একের পর এক নেমে আসছে গাঙ্গেয় সুন্দরবন এলাকায়, কখনোবা নেমে আসছে আম্ফান বুলবুল ইয়াস নামক প্রাকৃতিক বিপর্যয়। তার উপরে নুন আনতে পান্তা ফুরানো পরিবারগুলি এক মুঠো অন্নের সংস্থান আবাদ যোগ্য জমি।বছরের পর বছর চাষ যোগ্য জমি নদীর বাঁধ ভেঙে চাষের দফারফা। তার মধ্যে পরিবারের সদস্যের মুখে অন্ন তুলে দিতে বিকল্প কর্ম কর্মসংস্থানের পথ বেছে নেওয়ার লক্ষ্যে এই মুহূর্তের প্রয়াস। দীর্ঘদিন ধরে চলা করোনা ভাইরাসের প্রকোপে লকডাউন। তার উপরে সুন্দরবন সীমানা থেকে আসা হিংস্র জানোয়ার বাঘের আক্রমণ। নদীতে মৎস্যজীবীদের জালে মিলছে না ঠিকমত মাছ তার ওপরে একের পর এক আক্রমন লেগেই আছে,যেন মরার উপর খাঁড়ার ঘা তার মধ্যে দিয়েও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তারা গড়ে তুলতে চলেছে ভাসমান সবজি ক্ষেত যেখানে রোদ জল বৃষ্টি কে উপেক্ষা করে চাষির মনে হাসি ফোটাবে। কিছুটা হলেও বেশ ব্যায় সাপেক্ষ তবুও অসময়ে- সময়ের সব্জি পাওয়া যাবে । এমনই জানালেন কর্মকর্তারা।।