পঞ্জাবের ঘটনা নিয়ে কুনাল কামরার টুইট, শোরগোল নেটপাড়ায়

নতুন গতি নিউজ ডেস্ক: পঞ্জাবের ঘটনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বিঁধতে ছাড়লেন না জনপ্রিয় কমেডিয়ান কুণাল কামরা। বুধবার বিকেলে ভাটিন্ডার ঘটনা নিয়ে উত্তপ্ত জাতীয় রাজনীতি। সভাস্থলে যাওয়ার পথে উড়ালপুলের উপর বিক্ষোভে মোদীর কনভয় আটকে থাকার ঘটনায় রাজনীতির জল বহুদূর গড়িয়েছে। তারই মাঝে Kunal Kamra-এর টুইটে নেটপাড়ায় ব্যাপক শোরগোল।

বুধবার ফিরোজপুরে একটি সভা করার কথা ছিল Narendra Modi-এর। সেইমতো হুসেইনওয়ালা থেকে ফিরোজপুরের উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল মোদীর কনভয়। কিন্তু, মাঝপথে উড়ালপুলে বিক্ষোভের মুখে পড়ে যায় কনভয়। দীর্ঘক্ষণ সেখানেই আটকে থাকতে হয় প্রধানমন্ত্রীকে। শেষ পর্যন্ত সভা বাতিল করা হয়। ঘটনাকে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় বড়সড় গাফিলতির অভিযোগ তুলেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। সেই নিয়েই উত্তপ্ত দেশের রাজনীতি। তপ্ত নেটদুনিয়াও। কমেডিয়ান কুণাল কামরার টুইটে তাতেই পড়ল ঘৃতাহুতি।

এদিন নাম না করে Punjab-এর প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানান কমেডিয়ান কুণাল কামরা। স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে মোদীকে কটাক্ষ করেছেন তিনি। নাম না করে তিনি লেখেন, ‘জওয়ানেরা আমাদের জন্য সারারাত সারাদিন সীমান্তে পাহারায় মোতায়েন, সেখানে আপনি ১৪-২০ মিনিট ট্রাফিকে দাঁড়াতে পারছেন না!’

ভারতের হাতেগোনা পলিটিক্যাল কমেডিয়ানদের মধ্যে অন্যতম কুণাল কামরা। প্রকাশ্যে মোদী-শাহ এবং BJP বিরোধী কথা বলে থাকেন তিনি। অতীতেও কখনও স্ট্যান্ড আপ চলাকালীন রসিকতার ছলে মোদী সরকারের খুঁতগুলি একেবারে পয়েন্ট করে দেখিয়েছেন। কখনও আবার ‘ডোন্ট ভোট ফর মোদী’ ক্যাম্পেইন চালু করেছেন। যা শুধু দেশে নয়, জনপ্রিয়তা পেয়েছিল আন্তর্জাতিক স্তরেও।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কনভয় আটকে যাওয়ার পুরো ঘটনাকেই নাটক বলে কটাক্ষ করেছে কংগ্রেস। হাত শিবিরের দাবি, সভাস্থলে লোক না হওয়ায় নিজের সম্মান বাঁচাতে নিরাপত্তা নিয়ে নাটক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই দাবির স্বপক্ষে দলের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে ফাঁকা সভাস্থলের একটি ছবি টুইটও করা হয়। এখানেই শেষ নয়, কংগ্রেসের কটাক্ষ, ‘বুদ্ধিমান জনতার BJP-র খেলা বুঝতে সময় লাগবে না।’

অন্যদিকে, পঞ্জাবে প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি আটকে পড়ার ঘটনাটি নিয়ে বৃহস্পতিবার ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট করেন Kangana Ranaut। একেবারে কেন্দ্রের দাবিকে সমর্থন জানিয়েই গোটা ঘটনাটিকে লজ্জাজনক আখ্যা দিয়ে ইনস্টা-পোস্টে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘পঞ্জাবে যে ঘটনাটি ঘটেছে সেটি লজ্জাজনক। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত নেতা / প্রতিনিধি / ১.৪ বিলিয়ন মানুষের প্রতিধ্বনি। তাঁর উপরই এই হামলা আদতে প্রত্যেক ভারতীয়র উপর হামলা। এটা আমাদের গণতন্ত্রের উপর হামলা।’ এখানেই শেষ নয়, পঞ্জাবকে ‘জঙ্গিদের ঘাঁটি’ বলেও তোপ দেগেছেন মনিকর্ণিকা-তারকা।