দুর্গাপুজোর অনুদানের চেক বিলি সদাইপুর থানায়

নিজস্ব সংবাদদাতা: মঙ্গলবার দুবরাজপুর ব্লকের সদাইপুর থানা এলাকার দুর্গাপূজা কমিটির হাতে মুখ্যমন্ত্রী প্রেরিত চেক প্রদান করা হয় এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।উল্লেখ্য মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায় গত কয়েক বৎসর যাবৎ সার্বজনীন পূজা কমিটির হাতে পঞ্চাশ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।এ বৎসর সেই টাকার পরিমাণ বাড়িয়ে করা হয় ষাট হাজার টাকা, পাশাপাশি বিদ্যুৎ বিলের ক্ষেত্রে ও ৬০ শতাংশ থেকে ছাড়ের কথা ঘোষণা করেন।চেক হাতে পেয়ে স্বভাবতই খুশির আমেজ পূজা কমিটির সদস্যদের মধ্যে।

বাঙালির দুর্গাপুজো ভারত বর্ষ ছড়িয়ে পৃথিবীর মানচিত্রে স্থান অধিকার করেছে। সেই লক্ষ্যে সমগ্র বাংলা জুড়ে এবারে দুর্গাপূজার আরম্বরতা ফুটে উঠেছে। সম্প্রীতিকে বজায় রেখে আন্তরিকতার মেলবন্ধনে এবার দুর্গা পুজো মধুর হয়ে উঠুক এই কামনা করেন উপস্থিত সকলেই । বিভিন্ন পুজো কমিটির হাতে শুধু চেক তুলে দেওয়া নয় তার পাশাপাশি আগামী দুর্গাপুজোতে কমিটিগুলোর কি কি করনীয় সে বিষয়ে ও বিস্তারিত আলোকপাত করেন। পুজো প্যান্ডেল থেকে শুরু করে বিসর্জন সম্পর্কিত বিভিন্ন দিক সম্পর্কে ও খুঁটিনাটি উল্লেখ করেন।

এদিন বক্রেশ্বর সোনাঝুরি কমিউনিটি হলে চেক প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সদাইপুর থানার ওসি মহম্মদ মিকাইল মিঞা, বিশিষ্ট সমাজসেবী ভোলানাথ মিত্র, রত্নাকর মণ্ডল, দুবরাজপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মিলন বাগ্দী, সিউড়ি ১ নম্বর ব্লকের জয়েন্ট বিডিও সুবোধ কুমার মণ্ডল, চিনপাই গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান বিপদতারন ডোম, ভূরকোনা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান রেখা বাগ্দী সহ দমকল বিভাগ ও বিদ্যুৎ বিভাগের আধিকারিক সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। সদাইপুর থানার পক্ষ থেকে জানানো হয়, হাইকোর্টের নির্দেশ মোতাবেক এবার পুজোয় ডিজে বক্স বাজানো নিষিদ্ধ রয়েছে। তাছাড়াও প্রতিটি পুজো কমিটিগুলোকে থানার সাথে একটি হোয়াটস্‌অ্যাপ গ্রুপে যুক্ত করা হবে। পুজো সংক্রান্ত কোনো জরুরি বার্তা এলে এই গ্রুপে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। পাশাপাশি বিদ্যুৎ ও অগ্নি নির্বাপণ কেন্দ্রের পক্ষ থেকেও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেওয়া হয়।