রাজ্যের ৪ জেলায় উদ্বেগ বাড়াচ্ছে বন্যা পরিস্থিতি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছেন পরিস্থিতির দিকে নজর রাখতে

নতুন গতি ওয়েব ডেস্ক: রাজ্যের ৪ জেলায় উদ্বেগ বাড়াচ্ছে বন্যা পরিস্থিতি। অন্তত ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে প্লাবনে, ঘরছাড়া প্রায় আড়াই লক্ষ মানুষ। পরিস্থিতি উদ্বেগজনক বলে জানা গিয়েছে নবান্ন সূত্রে। এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংশ্লিষ্ট দফতরের মন্ত্রীদের নির্দেশ দিয়েছেন পরিস্থিতির দিকে নজর রাখতে। উদ্ধারকাজ এবং ত্রাণসামগ্রী বিতরণ তদারকি করতে।

সোমবার সেনা এবং বায়ুসেনার তরফে উদ্ধারকাজ চালানো হয় হুগলি জেলায়। খানাকুল-সহ জেলার একাধিক অঞ্চল জলের তলায়। নদীর প্লাবনে ঘরছাড়া বহু মানুষ। জানা গিয়েছে, ডিভিসি জল ছাড়ার ফলে সমস্ত এলাকা জলমগ্ন। প্রায় ২.৫ লক্ষ মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান, পশ্চিম মেদিনীপুর, হুগলি, হাওড়া এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ অঞ্চল জলের তলায়। কোমর জলে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যেতে ভোগান্তিতে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। সাত জনের ইতিমধ্যে মৃত্যু হয়েছে। মন্ত্রিসভার একটি বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মন্ত্রীদের নির্দেশ দিয়েছেন নিজে নিজের জেলায় উদ্ধারকাজ এবং ত্রাণ বিলি তদারকি করতে।

প্রায় এক লক্ষ ত্রিপল, হাজার মেট্রিক টন চাল, কয়েক হাজার জলের পাউচ এবং পরিস্কার জামাকাপড় আশ্রয় শিবিরগুলোত সরবরাহ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় ঘাটালের বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে যান। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সরকারের তরফে বন্দোবস্তের আশ্বাস দেন। রূপনারায়ণ ও দ্বারকেশ্বর নদ প্লাবিত হয়ে জল ঢুকেছে লোকালয়ে। হুগলিতে বহ জায়গা জলমগ্ন।