চৌকিদারের গুজরাট মডেল করোনা ইস্যুতে লজ্জার মডেলে পরিনত

নতুন গতি নিউজ ডেস্ক: ছাত্র জীবনে সবারই হয়তো অভিজ্ঞতা আছে পরীক্ষার খাতায় কম লিখে এলে নাম্বারটা যথেষ্ট কমই আসে, সবাই চাই জীবনের পরীক্ষায় ভালোভাবে লিখে এসে ভালোভাবে উত্তীর্ণ হতে কিন্তু উজিরে আজম নরেন্দ্র মোদির নিজের রাজ্যে রাজনৈতিক ছাত্রদের একি হাল? নাম্বার কম পাবার আশায় কম টেস্ট দেওয়া একমাত্র ছাত্র হয়তো গুজরাট।বেশি করোনা টেস্ট করার ফলে আক্রান্ত সংখ্যা দিনদিন হু হু করে বেড়ে চলেছে গুজরাটে আর তাতেই মাথাব্যথা গুজরাট বিজেপির। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাকে প্যানডেমিক ঘোষণা করার পরও বিজ্ঞানকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে আমেদাবাদে চব্বিশে ফেব্রুয়ারি নমস্তে ট্রাম্পের দামামা বাজানো হয়েছিল। এর ফল এখন হাতে নাতে পাওয়া যাচ্ছে। গুজরাট রাজ্যে কংগ্রেসের অভিযোগ নমস্তে ট্র্যাম্প অনুষ্ঠান থেকেই করোনা হু হু করে ছড়িয়ে পড়ে, সেই অনুষ্ঠানে বহু বিদেশির উপস্থিতিও দেখা গেছিল।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গুজরাটের নমস্তে টাইম ভারতবর্ষের মানুষকে বিপদের মুখে ফেলে দিয়েছে। গুজরাটের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে হাইকোর্টে মামলাও হয়েছে, হাইকোর্টে রীতিমতো ভৎসনার শিকার হতে হয়েছে গুজরাট সরকারকে। আমেদাবাদের সরকারি ও বেসরকারি নার্সিং হোমের চিকিৎসকরা জানান করোনা টেস্টের জন্য অনুমতি গুজরাট স্বাস্থ্য দপ্তর, যদিও দিচ্ছে দুই-তিনদিন পর ১০-১২% মানুষের।

প্রসঙ্গত বঙ্গ বিজেপি এর আগে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নামে নানা অভিযোগ তুলে ধরেছিল করোনা ইস্যুতে কিন্তু ব্যর্থ গুজরাট মডেল নিয়ে তাদের কোনো মাথাব্যথা নেই। গুজরাট মডেল বিজেপির লজ্জার মডেল হিসাবে সারা বিশ্বের কাছে উঠে আসতেই মুখে কুলুপ এঁটেছেন বিজেপি নেতারা।