ফের মধ্যপ্রদেশে বিষাক্ত মদ খেয়ে মৃত ১১ জন, আশঙ্কাজনক ৭

নতুন গতি ওয়েব ডেস্ক: বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশে বিষাক্ত মদ খেয়ে প্রাণ গেল ১১জনের। গুরুতর অসুস্থ আরও ৭ জন। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এমনই জানিয়েছেন মোরেনার পুলিশ সুপার অনুরাগ সুজানিয়া। ঘটনার জেরে শোকের ছায়া পাহাওয়ালি ও মানপুর গ্রামে। শোকপ্রকাশ করেছেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র। জানা গিয়েছে, বিষ মদের জেরে মৃত এবং অসুস্থরা মােরেনা জেলার পাহাওয়ালি এবং মানপুর গ্রামের বাসিন্দা। ওই দু’টি গ্রামের দুরত্বও খুব বেশি নয়। একই জায়গায় তৈরি স্থানীয় মদ খেয়ে ওই গ্রামের ব্যক্তিরা অসুস্থ হয়েছেন বলে প্রাথমিক অনুমান। যদিও কোথায় তৈরি মদ খেয়ে এই পরিণতি তা নিশ্চিতভাবে এখনও জানতে পারেনি প্রশাসন।

অসুস্থদের পরিবার সূত্রে খবর, সোমবার রাতে মদ খেয়ে বমি শুরু হয়। দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পথেই মারা যান ১০জন। বাকি ১জন মারা যান হাসপাতালে। মৃতদের দেহ নিয়ে যাওয়া নিয়েও হাসপাতালে এক প্রস্থ ঝামেলা হয় গ্রামবাসীদের। তারা দেহ ট্রাক্টরে নিয়ে যেতে চাইলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অ্যাম্বুল্যান্সে দেহ নিয়ে যেতে বাধ্য করে। হাসপাতালে পাহাওয়ালি এবং মানপুর গ্রামের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ওই এলাকায় মদ বিক্রির রমরমা। যদিও কোথায় তৈরি মদ খেয়ে এই পরিণতি তা নিশ্চিতভাবে এখনও জানতে পারেনি প্রশাসন। এই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র। তিনি বলেন, স্থানীয় স্টেশন হাউজ অফিসারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তদন্তের জন্য একটি দল গঠন করা হয়েছে। পাশাপাশি তাঁর আশ্বাস, দোষীরা ছাড় পাবেন না। চম্বল রেঞ্জের ইনস্পেক্টর জেনারাল মনোজ শর্মা বলেন, কোথা থেকে এই মদ এসেছিল তা জানার চেষ্টা চলছে। স্থানীয়ভাবে মদ তৈরিও বন্ধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।