মালদা মহদিপুরে টাকা নিয়ে বিবাদের জেরে দাদাকে বাঁচাতে গিয়ে উল্টে গুরুতর জখম হলেন ভাই

নতুন গতি, ওয়েব ডেস্ক : টাকা নিয়ে বিবাদের জেরে দাদাকে বাঁচাতে গিয়ে উল্টে গুরুতর জখম হলেন ভাই। তাঁকে প্রাণে মারার চেষ্টা চালায় অভিযুক্তরা। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্তরা। জানা গেছে, এই ঘটনায় অন্তত ১৫ জন যুক্ত। দাদাকে বাঁচাতে গিয়ে উল্টে নিজে আক্রান্ত হন তিনি। এলোপাথাড়ি কোপানো হয়েছে তাঁকে। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসা শুরু হয়েছে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জখম ভাইয়ের নাম রজু শেখ(‌২৫)‌। সংশ্লিষ্ট থানার মোহদিপুরের বাগিচাপাড়ায় বাড়ি তাঁর।

 

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রজুর দাদা আমির শেখ পুকুরের ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। ব্যবসায় তাঁর সঙ্গে যৌথভাবে রয়েছে তাঁর বন্ধু হেমজুল শেখ ও জালাসু শেখ। ব্যবসা সংক্রান্ত ব্যাপারে দাদা আমিরের সঙ্গে সহকর্মীদের গন্ডগোল বাঁধে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আমির তাঁর সহকর্মীদের কাছ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা পাবেন। এই নিয়ে এদিন বিকেলে গন্ডগোল হচ্ছিল। অভিযুক্ত হেমজুল, জালাসু-‌সহ ১৫ জন দলবেঁধে চড়াও হয় আমিরের ওপর। তাঁকে ঘিরে ধরে মারতে থাকে। দাদাকে মারার খবর গিয়ে পৌঁছয় ভাই রজু শেখের কাছে। জানা গেছে, লিচুপাড়ার কাছে চলছিল গন্ডগোল। দাদাকে বাঁচাতে সঙ্গে সঙ্গে ছুটে যান রজু। সেই সময় ভাইকে পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে থাকে অভিযুক্তরা। এক প্রতিবেশি সামিম শেখ অভিযোগ করে বলেন, ‘‌নৃশংসভাবে কোপানো হয়েছে তাঁকে। পা থেকে মাথা পর্যন্ত ১৫ জায়গায় কোপানো হয়েছে। আমরা অভিযুক্তদের যথাযোগ্য শাস্তি চাই।’‌ পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্তরা। তাদের খোঁজ চলছে।