পরবর্তী ভোটের দামামা বাজিয়ে দিলো, সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার

পরবর্তী ভোটের দামামা বাজিয়ে দিলো, সাংসদ

বিশেষ প্রতিবেদন, দেগঙ্গা :  বিশ্ব বরেণ্য কবি, বাঙালির গর্ব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬১ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উঃ চব্বিশ পরগনা জেলার দেগঙ্গা বিধানসভা মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস।  এদিনের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে কবির প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার কে তীব্র আক্রমণ করে বারাসাত লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ ডাঃ কাকলি ঘোষ দস্তিদার। তিনি বলেন ,  ভেদাভেদ সৃষ্টি করে মানুষের মন জয় করা যায় না, জয় করতে গেলে রবীন্দ্র-নজরুলের সম্প্রিতীর বার্তা মানুষের কাছে তুলে ধরতে হয়।  আর এই কাজ অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছে বাংলার জনদরদি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাই আগামী লোকসভা নির্বাচনে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস বৃহত্তম শক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে।  রাজ্যের মন্ত্রী শ্রী রথীন ঘোষ তাঁর বক্তব্যে সবাই কে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শান্তি, সম্প্রীতি ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে কাজ করার আহ্বান করেন।  বিধায়ক রহিমা মন্ডল ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন আয়োজক কমিটির সদস্যদের।  পাশাপাশি তিনি আগামী নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস ব্যাপকহারে জয়যুক্ত হবে বলে জানায়।

জেলার লড়াকু নেতা, কর্মাধ্যক্ষ বন ও ভূমি একেএম ফারহাদ দৃঢ় কন্ঠে বলেন৷,  বাংলার মাটি সম্প্রিতীর ঘাঁটি, এখানে একদিকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, নজরুল ইসলাম, রামকৃষ্ণ পরমহংস, স্বামী বিবেকানন্দের মতো মহাপুরুষদের বাংলায় কোন অসাধু উদ্দেশ্যে চরিতার্থ হবে না। এখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো ব্যক্তিত্ব আছে, তাই কোন বিভাজিত শক্তি বাংলার মাটিকে বিভাজিত করতে পারবে না। সর্বোপরি পরবর্তী নির্বাচনে বাংলা তথা সর্বত্র মা মাটি মানুষের জয় জয়কার হবে বলেও তিনি প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষভাবে উপস্থিত ছিলেন, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মফিদুল হক সাহাজি ,  দেগঙ্গা ব্লক মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস সভানেত্রী শম্পা কাহার,  ইচাহক সর্দার, আনিসুর রহমান, রবিউল ইসলাম মুকুল, রিঙ্কু সাহাজি, লিয়াকাত আলি সাগর, মৌমিতা কাহার, আবদুল গফফর, অজয় বৈদ্য, জলধর মন্ডল সহ স্থানীয় নেতৃত্ব।